ডরপোকগিরি ও লাইফ চেইঞ্জ করার ইচ্ছা

Target is the need to achieve success

টার্গেট ঠিক রাখার মূল পাতা

বাসার সামনে, গলির মুখে, টঙ্গে, নতুন একটা চায়ের দোকান দিলে, প্রথম দিন থেকেই ভিড় জমে যায় না। বরং গুগলে সার্চ দিয়েও কাস্টমার খুঁজে পাওয়া যায় না। দোকানি হয়তো এক ডজন কলা এনে রেখেছে, দিন শেষে, দুই- তিনটার বেশি বিক্রি করতে পারে না। তারপরেও আশায় আশায় পরের দিন দোকান খুলে। কাস্টমার না আসলেও, চুলা জ্বালিয়ে বেঞ্চিগুলো মুছে রাখে। এইভাবে চলতে থাকে দিনের পর দিন। প্রথম কয়েক মাসতো ভাড়ার টাকা, বড় ভাইদের চাঁদার টাকা উঠাতে পারে না। তারপরেও, ঝড় বৃষ্টি বাদল উপেক্ষা করে, গ্রীষ্ম কিংবা শরতে, ফজরের আজানের আগে, দোকান খুলে, কেটলি পরিষ্কার করে বসে থাকে। ধীরে ধীরে, একটু একটু করে কাস্টমারের সংখ্যা বাড়তে থাকে। মাসে দু-চার দিন বেচা বিক্রি হালকা ভালো হলে, দোকানদার একটু আশার আলো দেখতে পায়। সেই আশার আলো কিন্তু প্রথম দিন থেকেই দেখতে পায় না।

স্বপ্ন বাস্তবায়ন করা, চা দোকানের ব্যবসা জমানোর চেষ্টার মতোই একই সাথে সহজ এবং কঠিন কাজ। প্রথম প্রথম গুঁতাগুঁতি করতে করতেও, আগাতে পারবেন না। আটকে যাবেন, ভরসা পাবেন না। শেষপর্যন্ত যে লক্ষে পৌঁছতে পারবেন, সেই গ্যারান্টি কেউ দিবে না। কঠিন কঠিন থিওরি বা ম্যাথ মাথায় ঠুকবে না। কাজে আনন্দ পাবেন না। তারপরেও, পরেরদিন সকালে উঠে, সেই বই খুলে বসতে হবে। নিজে না পারলে, অন্য কোন ফ্রেন্ডের কাছে বা টিচারের কাছে বা গুগলের সার্চ মেরে উত্তর খুঁজতে হবে। কোন কারণে ভালো না লাগলে, দুই ঘন্টা গ্যাপ নিয়ে আবার বসতে হবে। গ্রীষ্ম বর্ষা শীত যাই হোক না কেনো, বুঝে না বুঝে, আন্দাজে ঠেলতে থাকলে, একসময় না একসময় আশার আলো দেখতে পাবেন। সেই আলো কিন্তু প্রথম দিনই দেখতে পারবেন না। তাই আপনার সাধনার কাছে ফিরে আসতে হবে বার বার, হাজার বার।

ধরেন, কোন একটা কঠিন সাবজেক্টের আগা মাথা, প্রফেশনাল লেভেলে প্রোগ্রামিং, bassbaba সুমনের মতো গিটার বাজানোর সিস্টেম এক দিনে বুঝে ফেলবেন না। শুরু করার আগেই মাথায় ইউনিক কোন আইডিয়া আসবে না। প্রথম দিনই লাভের অংক কষার দরকার নাই। প্রথম প্রথম হিসাব করতে হবে - লেগে থাকার, চেষ্টা চালিয়ে যাবার। জাস্ট, চা দোকানদারের মতো, কাস্টমার আসুক বা নাইবা আসুক, দোকানে আসতে হবে। কেটলিতে পাতা ঠেলে বসে থাকতে হবে। বসে থাকতে থাকতে, সাধনা করতে করতে, নতুন নতুন উপায় আপনার মাথায় আসবে, সেগুলা ট্রাই করবেন। দুই একটা কাজে লাগবে, অনেকগুলা কাজে লাগবে না। তাও চালায় যেতে হবে।

তবে ডরপোকগিরি করা যাবে না। মাঠে নামার আগে হেরে যাওয়া যাবে না। অতীতে কোন কিছু করতে পারেন নাই বলে, ভবিষ্যৎ চেইঞ্জ করতে পারবেন না, তা ভাববেন না। নির্জন একটা পথের ধারে, ছোট্ট চায়ের দোকান জমিয়ে, সংসার চালনোর খরচ উঠাতে পারলে, আপনিও পারবেন আপনার ঘুমের মধ্যে দেখা স্বপ্নকে, বাস্তবে অর্জন করতে।

সঙ্গেই থাকুন::

হুট হাট করে মাঝে মধ্যে লেখা আসবে


FB post




Question or Feedback:

যদি লোকসম্মুখে প্রশ্ন জিগ্গেস করতে বা উপদেশ, বকাঝকা, গালাগালি, হুমকি দিতে সংকোচ লাগে তাইলে ইমেইল করে দেন jhankar.mahbub@gmail.com