অবাস্তব স্বপ্ন ও সামর্থ্যের অভাব

Target is the need to achieve success

টার্গেট ঠিক রাখার মূল পাতা

লজিক্যালি, শুধুমাত্র ফ্যাক্ট নিয়ে চিন্তা করলে- ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে আমরা যুদ্ধে নামতে পারতাম না। ওদের সৈন্য, অস্ত্র, যুদ্ধ পরিচালনার মাস্টার প্ল্যান মোকাবিলা করার জন্য আমাদের তেমন কিছুই রেডি ছিলো না। তারপরেও আমরা যুদ্ধ শুরু করেছিলাম। এমনকি ঠিকমত যুদ্ধে জড়ানোর আগেই, দুই-একটা ছোট খাটো যুদ্ধে জয়ের স্বাদ পাওয়ার আগেই, স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়ে দিছিলাম। খেয়াল করলে বুঝতে পারবেন- আমরা আগে টার্গেট সেট করেছিলাম। তারপর যুদ্ধ শুরু করেছিলাম।

লজিকের চাইতে ইমোশনের উপর ভরসা করে, একটা স্বাধীন দেশ পাওয়ার প্রচণ্ড আবেগ অন্তরে ধারণ করে চেষ্টা চালিয়ে যাইতে পারছিলাম বলেই - দেশ স্বাধীন হইছিলো।

অথচ আমাদের জীবনে, কোন কিছু নিয়ে প্ল্যান-প্রোগ্রাম, হিসাব-নিকাশ করতে গেলে আমরা ড্রিম নির্ভর না হয়ে, মেমোরি নির্ভর হয়ে যাই। আশেপাশে উদাহরণ খুঁজি। অন্যদের চেষ্টার গতি, ব্যর্থতার সংখ্যার উপর নির্ভর করে নিজেদের সামর্থ্যকে আন্ডার ইস্টিমেট করি। তাই আমাদের ইমাজিনেশনগুলো বাস্তবতার গণ্ডির মধ্যে লিমিটেড হয়ে পড়ে। বরং আমাদের ডিসিশন হওয়া উচিত আমাদের ড্রিমের উপর নির্ভর করে। আগে টার্গেট সেট করে কাজে নেমে যেতে হবে। তারপর অবস্থার উপর নির্ভর করে লক্ষ্য অর্জনের জন্য মুক্তি বাহিনী, গেরিলা বাহিনী গঠন করতে হবে। কারণ, যদি লক্ষ্য থাকে অটুট, বিশ্বাস হৃদয়ে। হবেই হবেই দেখা। দেখা হবে বিজয়ে।

সঙ্গেই থাকুন::

হুট হাট করে মাঝে মধ্যে লেখা আসবে


FB post




Question or Feedback:

যদি লোকসম্মুখে প্রশ্ন জিগ্গেস করতে বা উপদেশ, বকাঝকা, গালাগালি, হুমকি দিতে সংকোচ লাগে তাইলে ইমেইল করে দেন jhankar.mahbub@gmail.com